14.2 C
New York
Monday, March 4, 2024

Buy now

spot_img

চন্দননগর পুলিশের সাইবার থানার জালে জালিয়াত!

স্পেশাল রিপোর্ট, ডেস্ক: টেকনোলজি যত উন্নত হচ্ছে, তত ক্রাইমও বাড়ছে। আধারকার্ডের দ্বারা বহু মানুষ টাকা তোলা বা জমা করে থাকেন। আর সেই সময় প্রয়োজন হয় আঙুলের ছাপ। কিন্তু সেই আঙুলর ছাপকে বা আধার এনাবেল পেমেন্ট সিস্টেম কাজ লাগিয়ে বা কায়দা করে বহু জায়গার টাকা বেআইনি ভাবে তুলে নিচ্ছে, কিন্তু টেরও পাচ্ছেন না তার অ্যাকাউন্ট হোল্ডার। বহু লোক এরই মধ্যে সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছেন। প্রতিদিনই নতুন নতুন অভিযোগ হচ্ছে সাইবার থানায়। এরই মধ্যে অন্যের আইডি ব্যবহার করে বেআইনি ভাবে বেশি বেশি টাকা নিয়ে আধার আপডেট চক্রের হদিশ পেল চন্দননগর পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগ। তদন্তে নেমে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে চন্দননগর পুলিশের সাইবার থানা। সাইবার থানার ইন্সপেক্টর গৌতম সাহা বলেন- UDAI ডায়রেক্টর যিনি আধারের বিষয়টি দেখেন তিনি একটি অভিযোগ করেন চলতি মাসের ২০ তারিখে। চন্দননগরের একটি কম্পিউটার সেন্টার অন্যের আইডি ব্যবহার করে বেশি টাকা নিয়ে আধার সংশোধন করছে। আমরা তদন্ত শুরু করি এবং দেখি চন্দননগর কোর্ট মোড়ের কাছে একটি কম্পিউটার সেন্টার আছে যেখানে কম্পিউটার শেখানো হয় এবং আধার কার্ড আপডেট হয়, প্যান কার্ডের কাজ হয়। কম্পিউটার সেন্টারের মালিক অনুপ ঘোষ অন্যের আইডি ব্যবহার করে এই কাজ করছিলেন। আমরা যখন তার কাছে কাগজপত্র দেখতে চাই সে কিছুই দেখাতে পারেনি। কোন মানুষ যদি নতুন আধার কার্ড করেন তার জন্য কোন টাকা দিতে হয় না। আধার সংশোধন বা আপডেট করতে গেলে ৫০ টাকা দিতে হয়। এক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি ২৫০-৩০০ বেশি টাকা নিচ্ছিলেন। ওই কম্পিউটার সেন্টারের ল্যাপটপ হার্ড ডিস্ক বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। কম্পিউটার সেন্টারের মালিককে  গ্রেফতারের পর একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের আউট সোর্সিং এ কাজ করা এক কর্মীকেও গ্রেফতার করা হয়। বৈদ্যবাটি থেকে আরও একজনকে গ্রেফতার করা হয়। যে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের কারো আধার আপডেট করার রেজিস্টার আইডি ছিল না। যার কাছে কেন্দ্রীয় UDAI এর দেওয়া রেজিস্টার আইডি আছে সেই একমাত্র আধার সংক্রান্ত কাজ করতে পারে, সরকারি ধার্য করা অর্থই সেক্ষেত্রে নিতে পারে। বর্ধিত টাকা নেওয়া বেআইনি। চন্দননগরের ওই কম্পিউটার সেন্টারের বিরুদ্ধে সেই বাড়তি টাকা নেওয়ারই অভিযোগ ছিল। যার একটা বড় চক্র রয়েছে এই আধার আপডেটের নাম করে টাকা তোলার পাশাপাশি এইভাবে সাইবার প্রতারণাও ঘটছে বলে অমুমান সাইবার বিশেষজ্ঞদের। কারন এভাবে আধারে মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করে দেওয়া যায় অনায়াসে।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

[td_block_social_counter facebook="tagdiv" twitter="tagdivofficial" youtube="tagdiv" style="style8 td-social-boxed td-social-font-icons" tdc_css="eyJhbGwiOnsibWFyZ2luLWJvdHRvbSI6IjM4IiwiZGlzcGxheSI6IiJ9LCJwb3J0cmFpdCI6eyJtYXJnaW4tYm90dG9tIjoiMzAiLCJkaXNwbGF5IjoiIn0sInBvcnRyYWl0X21heF93aWR0aCI6MTAxOCwicG9ydHJhaXRfbWluX3dpZHRoIjo3Njh9" custom_title="Stay Connected" block_template_id="td_block_template_8" f_header_font_family="712" f_header_font_transform="uppercase" f_header_font_weight="500" f_header_font_size="17" border_color="#dd3333"]
- Advertisement -spot_img

Latest Articles